ব্রেকিং নিউজঃ
 
Sun, 24 Sep, 2017

 

 

 

 

     
 

বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্যে এসে মহাজোট নেতাদের ক্ষোভ প্রকাশ

বাংলাদেশ বার্তা ২৪.কম/ সোনারগাঁ/ ১০ জানুয়ারি/ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে রোববার সোনারগাঁয়ে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন চত্বরে বঙ্গবন্ধুর ব্রোঞ্জ নির্মিত ভাষ্কর্যের পাদদেশে পুস্পস্তবক অর্পণ করেছেন স্থানীয়

সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকা, থানা আওয়ামীলীগ ও জাতীয় পার্টিসহ মহাজোটের নেতৃবৃন্দ। তবে এ দিবস পালনে ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষের চরম অবহেলা ও অব্যবস্থাপনার কারণে সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকাসহ মহাজোট নেতৃবৃন্দ এ সময় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

জানা যায়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে রোববার সকাল ১০টায় বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন চত্বরে বঙ্গবন্ধুর ব্রোঞ্জ নির্মিত ভাষ্কর্যে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন থানা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এ সময় থানা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালামের নেতৃত্বে আগত নেতাকর্মীরা ঐতিহাসিক এ দিবস উপলক্ষে ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষের অব্যবস্থাপনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন। পরে বেলা ১১টায় নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসনের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকার নেতৃত্বে উপজেলা জাতীয় পার্টি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ পৌরসভার নবনির্বাচিত কাউন্সিলর ও উপজেলা নারী নেতৃবৃন্দ ফাউন্ডেশন চত্বরে বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্যে পুস্পস্তবক অর্পণ করতে আসে। এ সময় ঐতিহাসিক এ দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্যের কোনরুপ পরিচর্যা না করার পাশাপাশি সম্পূর্ণ অবহেলা ও অব্যবস্থাপনার কারণে সাংসদ খোকা তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেন। এ সময় উপস্থিত লোকজনের মাঝেও তীব্র ক্ষোভের সূত্রপাত ঘটে। তারা ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সাংসদকে অনুরোধ করেন।

এ প্রসঙ্গে সোনারগাঁ থানা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষের অব্যবস্থাপনা আমাকে বিস্মিত করেছে। আমি দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানাচ্ছি।

'ানীয় সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকা বলেন, আমি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্যের প্রতি বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষের অবহেলা এবং দিবসটি পালনে তাদের চরম অব্যবস্থাপনার বিষয়টি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরকে জানিয়েছি এবং এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য তাকে অনুরোধ করেছি।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক রবিউল ইসলামের সঙ্গে মুঠোফোনে কথা হলে, তিনি আজ বাহিরে মিটিংয়ে ছিলেন তাই এ বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে দাবি করেন।

সংবাদ শিরোনাম