ব্রেকিং নিউজঃ
 
Sat, 23 Sep, 2017

 

 

 

 

     
 

বাড়ছে ডায়াবেটিসের প্রকোপ

বাংলাদেশ বার্তা ২৪.কম/ স্বাস্থ্য/ ১৪ নভেম্বর/ স্বাস্থ্যসম্মতখাবারই ডায়াবেটিস প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে অন্যতম উপায়এই প্রতিপাদ্য নিয়েআজ বিশ্বব্যাপী পালিত হচ্ছে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস। এই রোগে প্রতি সেকেন্ডেএকজন ও বছরে ৫০ লাখের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়। শনিবার বিশ্ব ডায়াবেটিসদিবসে এই সতর্কবার্তা দিয়েছে বিশ্ব

স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।সংস্থাটি বলছে, বাংলাদেশসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার নয় কোটি ১০ লাখ মানুষডায়াবেটিসে আক্রান্ত, যাদের প্রায় অর্ধেক শনাক্ত হয় না।বর্তমানে দেশেডায়াবেটিসে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা প্রায় ৭১ লাখ। ২০৪০ সালে এই সংখ্যাগিয়ে দাঁড়াবে এক কোটি ৩৬ লাখে। ইন্টারন্যাশনাল ডায়াবেটিস ফেডারেশন (আইডিএফ)এই তথ্য দিয়েছে। বিশ্বের বেশি ডায়াবেটিস প্রকোপ দেশের ১০ নম্বরে আছেবাংলাদেশ। তালিকার শীর্ষে আছে চীন। এ অবস্থায় বিভিন্ন আয়োজনে বাংলাদেশেপালিত হল বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস। দিবসটি উপলক্ষে কনকর্ড ফার্মাসিউটিক্যালসলিমিটেড রাজধানীর গুলশান পার্ক, চন্দ্রিমা উদ্যান, রমনা পার্ক এবংধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ডায়াবেটিক রোগীদেরসচেতনতার পরামর্শ সম্বলিত ব্যানার নিয়ে শোভাযাত্রা করে। পরে ধানমন্ডিররবীন্দ্র সরোবরে সচেতনতামূলক কনসার্টের আয়োজন করা হয়। এ সময় ডায়াবেটিকরোগীদের জন্য আনা প্রতিষ্ঠানটির নতুন ওষুধ Dapazin সম্পর্কে বিস্তারিত তুলেধরা হয়। বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতির (বাডাস) এক হিসেবে শুধুমাত্ররাজধানীতে ডায়াবেটিস চিকিৎসার বিশেষায়িত প্রতিষ্ঠান-বারডেম হাসপাতালেই বছরেতিন লক্ষাধিক অর্থাৎ গড়ে প্রতিদিন ৮শনতুন রোগী রেজিস্ট্রেশন করছেন।আশঙ্কাজনক তথ্য হলো ডায়াবেটিস রোগীর শতকরা ৫০ ভাগ রোগী জানেন না তারা এরোগে আক্রান্ত। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সারাদেশে অব্যাহত নগরায়ন, পরিবর্তিত জীবনযাপন, অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস ও কায়িক পরিশ্রমের অভাবেপ্রায় সব শ্রেণীর মানুষের মধ্যে মোটা হওয়ার প্রবণতা দেখা দিয়েছে। সাধারণতশরীর স্থূল হয়ে গেলে ইনসুলিনের কার্যকারিতা কমে যায়। এ অবস্থায় ডায়াবেটিসছাড়া শরীরে অন্যান্য জটিলতাও দেখা দেয়। ডায়াবেটিস সম্পর্কে সচেতন না হলেএবং তা নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে ডায়াবেটিক রোগীর কিডনি, চোখ, হৃদপিণ্ড ও পামারাত্মকভাবে আক্রান্ত হয়ে শারীরিক জটিলতার প্রবল ঝুঁকি থাকে। যথাযথচিকিৎসার অভাবে অসংখ্য লোক অন্ধত্ব ও পঙ্গুত্ব বরণ করা ছাড়াও অকাল মৃত্যুরশিকার হচ্ছেন। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, যে সব কারণে ডায়াবেটিস হতেপারে সচেতন ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারলে শতকরা ৭০ ভাগ (টাইপ-২)ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করা সম্ভব। বর্তমানে দেশে যে হারে ডায়াবেটিক রোগীরসংখ্যা বাড়ছে এ হার অব্যাহত থাকলে ২০৩৫ সালে রোগীর সংখ্যা দেড় কোটি ছাড়িয়েযাবে। উল্লেখ্য, ইন্টারন্যাশনাল ডায়াবেটিস ফেডারেশন (আইডিএফ) ওডব্লিউএইচও ১৯৯১ সাল থেকে ডায়াবেটিস দিবস পালন শুরু করে।

সংবাদ শিরোনাম