ব্রেকিং নিউজঃ
 
Tue, 21 Nov, 2017

 

 

 

 

     
 

গাইবান্ধায় ডায়রিয়া পরিস্থিতির অবনতি

বাংলাদেশ বার্তা ২৪.কম/ স্বাস্থ্য/ ১১ আগস্ট/ গাইবান্ধায়ডায়ারিয়া পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় গাইবান্ধা আধুনিকহাসপাতালেই ২ শতাধিক রোগী ভর্তি হয়েছে। চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছে আরোশতাধিক। ইতিমধ্যে নছিরন বেগম (৬৭) নামে এক বৃদ্ধা ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েহাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা

গেছেন। তার বাড়ি সদর উপজেলার খোলাহাটীইউনিয়নের চকমামরোজপুর গ্রামে।বৃহস্পতিবার ভোর থেকে শহর এবং শহরতলীরডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীরা হাসপাতালে ভর্তি হতে শুরু করে। বেলা বাড়ার সঙ্গেসঙ্গে রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে থাকে। নির্ধারিত ওয়ার্ডে জায়গা সংকুলান নাহওয়ায় হাসপাতাল ভবনে প্রবেশের প্রধান গেট বন্ধ করে করিডোরসহ বিভিন্নস্থানেরোগীদের গাদাগাদি করে রাখার ব্যবস্থা করা হয়। জেলার অন্যান্য হাসপাতালেওডায়রিয়া রোগী ভর্তি হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তবে গাইবান্ধা সদর উপজেলারপরিস্থিতিই ভয়াবহ। বন্যার পানি নামতে শুরু করায় জেলা সদরসহ বিভিন্নউপজেলায় ডায়রিয়া আক্রান্তের খবর পাওয়া যেতে থাকে। গাইবান্ধা পৌরসভারপশ্চিমপাড়া, খানকাহ শরীফ, পলাশপাড়া, শাপলাপাড়া, ধানঘরা, সরকার পাড়া এবংশহরতলীর চকমামরোজপুর, খোলাহাটী, ধানঘরা, রামচন্দ্রপুর, বোয়ালী, ফলিয়া, মিয়াপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় ডায়রিয়া আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে।সর্বশেষশুক্রবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত গাইবান্ধা আধুনিক হাসপাতালে ডায়রিয়া রোগীভর্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২১৫ জন। এছাড়া হাসপাতালে জায়গা সংকুলান না হওয়ায়আরো শতাধিক রোগী প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে স্যালাইন লাগিয়ে বাড়ি চলে গেছে।বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য হাসপাতালের সামনে ব্র্যাকেরসহযোগিতায় অস্থায়ীভাবে ত্রিপল টানিয়ে ২০ বেডের একটি চিকিৎসা কেন্দ্র চালুকরা হয়েছে। এদিকে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগ থেকে হাসপাতাল চত্বরে বিশুদ্ধপানির জন্য নলকূপ ও অস্থায়ীভাবে কয়েকটি ল্যাট্রিন স্থাপন করেছে। এছাড়াস্থানীয় প্রশাসন শহরে মাইকিং করে ফুটানো বা বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট ব্যবহারকরা পানি খাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছে। অনেক রোগী হাসপাতালে ঢুকতে না পেরেহাসপাতাল চত্বরেই রাস্তার উপরই পলিথিন বিছিয়ে শুয়ে পড়েছে এমন দৃশ্যও দেখাগেছে। পরিস্থিতি মোকাবেলায় চিকিৎসকরা হিমশিম খাচ্ছে। সিভিল সার্জন ডা.নির্মলেন্দু চৌধুরীকে সেখানে সার্বক্ষণিক মনিটরিং করতে দেখা গেছে। জেলারোভার স্কাউটস এর সদস্যরা চিকিৎসা সেবায় সহায়তা করছে।এদিকে ঢাকারমহাখালী সংক্রামক ব্যাধি রোগ নির্ণয় বিভাগ (আইইডিসিআর) এর ঊর্ধ্বতনবৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. আল মামুন মাহবুব আলমের নেতৃত্বে ৮ সদস্যের একটিঅনুসন্ধানী টীম শুক্রবার বিকেলে গাইবান্ধায় এসে পৌঁছেছেন। তারা এপরিস্থিতির কারণ অনুসন্ধান করবেন বলে সিভিল সার্জন অফিস সূত্র জানিয়েছে।

সংবাদ শিরোনাম