ব্রেকিং নিউজঃ
 
Tue, 19 Sep, 2017

 

 

 

 

     
 

দুর্ভোগের জন্য ক্ষমা চাইলেন সড়ক পরিবহনমন্ত্রী

বাংলাদেশ বার্তা ২৪.কম/ গাজীপুর/ ৪ অক্টোবর/ কোরবানির ঈদের আগে সারাদেশের সড়ক যোগাযোগ নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তবে একাধিক দুর্ঘটনায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের যানজটে মানুষের দুর্ভোগের জন্য দুঃখপ্রকাশ করে ক্ষমা চান তিনি। শনিবারদুপুরে গাজীপুরের

চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় মহাসড়ক পরিদর্শনের সময় ওবায়দুলকাদের সাংবাদিকদের বলেন, যানজট ও রাস্তাঘাট নিয়ে আমি মোটামুটি সন্তুষ্ট।তবে আমি পুরোপুরি খুশি হতে পেরেছি এ কথা বলার কোনো উপায় নেই। তিনিবলেন, শুধু চন্দ্রা থেকে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর অংশে কয়েকটি এঙিডেন্ট হওয়ায়ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের এ অংশে অনেক মানুষ বেশ কিছু সময় দুর্ভোগের কবলেপড়েছে । সে জন্য আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত ও ক্ষমাপ্রার্থী। শনিবারসকাল থেকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গাজীপুরের চন্দ্রাসহ আশপাশের প্রায় ২৫কিলোমিটার এলাকাজুড়ে সৃষ্ট যানজটে পড়ে ঈদে ঘরমুখো মানুষ। হাইওয়ে পুলিশ বলছে, আগের রাতে একাধিক সড়ক দুর্ঘটনা, গরুবোঝাই ট্রাক ও বাড়ি ফেরা মানুষের চাপের কারণে ওই মহাসড়কে যানজট তৈরি হয়। এদিকেপাশের ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কেও ঈদে ঘরমুখো যাত্রীর পরিবহনের চাপে গাড়ি চলছেখুব ধীরে।  এই মহাসড়কে কোনো দুর্ঘটনা না ঘটলেও ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কেরযানজটের চাপ এখানেও প্রভাব ফেলে। তবে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, অন্যান্য মহাসড়ক যেমন ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-ময়মনসিংহ, সিলেট, যশোর, খুলনা, ফরিদপুরের মহাসড়কগুলো যানজটমুক্ত রয়েছে। এসব স্থানের মহাসড়কে কোথাও কোনোদুর্ভোগের কারণ তৈরি হয়নি। তাছাড়া পূজা ও ঈদ উপলক্ষে বেশির ভাগমানুষ আগেই রাজধানী ছেড়ে গেছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, শনিবারদুপুরে বাসে যাত্রীদের তেমন চাপ নেই। আর রাস্তায় যানবাহনেরও সংখ্যাও কম। এসময় ঈদের আগে যাত্রীদের কাছে পরিবহন ব্যবসায়ীদের বেশি ভাড়া নেয়ার অভিযোগের বিষয়ে জানতে চান সাংবাদিকরা। মন্ত্রীবলেন, ঈদের সময় এমন ঘটনা হয়। শনিবার সকালে মহাখালী বাস টার্মিনালপরিদর্শনে গেলে একটা গাড়িতে বেশি ভাড়া নেয়ার অভিযোগ উঠে। সঙ্গে সঙ্গেদাঁড়িয়ে থেকে ভাড়ার জন্য নেয়া বেশি টাকাটা ফেরৎ দেয়া ব্যবস্থা করেছি। এর জন্য সচেতনতা না থাকাকে দায়ী করে তিনি বলেন, রাতারাতি পুরনো এ অভ্যাস পরিবর্তন করতে পারব না। তবে এসব আস্তে আস্তে সহনীয় হয়ে আসছে। সার্বিকপরিস্থিতিকে ভালআখ্যা দিয়ে পূজা ও ঈদ উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীনিয়োগসহ সমস্যা মোকাবেলায় পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন পরিবহনমন্ত্রী। মন্ত্রীরসঙ্গে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ প্রকল্পের উপ-পরিচালকলেফটেন্যান্ট কর্নেল আনোয়ার হোসেন, সড়ক ও জনপথ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধানপ্রকৌশলী মো. আফতাব উদ্দিন খান, গাজীপুরের পুলিশ সুপার মো. হারুন অর রশীদ, গাজীপুর সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী মহিবুল হক ও মানিকগঞ্জ সওজের নির্বাহীপ্রকৌশলী সবুজ উদ্দিন খানসহ  সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিতছিলেন।