ব্রেকিং নিউজঃ
 
Fri, 24 Nov, 2017

 

 

 

 

     
 

৭ খুনের ঘটনায় তদন্ত কমিটির অগ্রগতি প্রতিবেদন আদালতে

বি-বার্তা/ ঢাকা/ ১৪ মে/ আদালতেরআদেশে গঠিত জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি আজ বুধবার তাদের প্রাথমিকঅগ্রগতি প্রতিবেদন আদালতে জমা দিয়েছে। কমিটির সদস্য সচিব জনপ্রশাসনমন্ত্রণালয়ের উপসচিব আবুল কাশেম মো. মহিউদ্দিন

প্রতিবেদন আদালতে পাঠানোরকথা স্বীকার করে বলেন, গত কয়েক দিনের তদন্ত, গণশুনানি এবং বিভিন্নগণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে একটি প্রাথমিক প্রতিবেদন আদালতে দেয়াহয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার আবারো গণশুনানি এবং সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হবে।এর পরিপ্রেক্ষিতে পাওয়া তথ্য দিয়ে আগামী সপ্তাহে আবারো প্রতিবেদন আদালতেজমা দেয়া হবে। প্রাথমিক অগ্রগতি প্রতিবেদনে তিন সপ্তাহের সময় চাওয়া হয়েছেবলে জানান তিনি। তবে আর কোনো সুপারিশ বা পর্যবেক্ষণ দেয়া হয়েছে কিনা, তাজানাতে তিনি অস্বীকৃতি জানান। প্রসঙ্গত, এর আগে গত ৬ মে তদন্ত কমিটিগঠিত হওয়ার পরদিন বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় কমিটির সদস্যরা নারায়ণগঞ্জপরিদর্শনে যান। কমিটির সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ কয়েকদিনে ক্ষতিগ্রস্তপরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন। নজরুল ইসলামসহ সাত খুনে র‍্যাবেরসম্পৃক্ততার অভিযোগসহ পুরো ঘটনা তদন্তে গত ৫ মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়েরএকজন অতিরিক্ত সচিবের নেতৃত্বে কমিটি গঠন করতে বলে হাই কোর্ট। নিহত নজরুলেরশ্বশুর শহীদুল ইসলাম র‍্যাবের বিরুদ্ধে ছয় কোটি টাকা নিয়ে হত্যাকাণ্ডঘটানোর অভিযোগ তোলার পরদিন সোমবার হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ স্বতঃপ্রণোদিত হয়েএই নির্দেশ দেয়। গত ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২ নম্বরওয়ার্ডের কাউন্সিলর নজরুল, আইনজীবী চন্দন কুমার সরকারসহ সাতজনকে অপহরণ করাহয়। তিন দিন পর শীতলক্ষ্যা নদীতে তাদের লাশ পাওয়া যায়। এ অপহরণ ও হত্যারজন্য র‍্যাবকে দায়ী করে নজরুলের শ্বশুর শহীদুল রোববার সাংবাদিকদের বলেন, আরেক কাউন্সিলর নূর হোসেন অর্থ দিয়ে র‍্যাবের মাধ্যমে তার জামাতাকে হত্যাকরিয়েছে। লিংক রোড থেকে নজরুলদের তুলে নেয়ার সময় কয়েকজন বালু শ্রমিকর‍্যাব-১১ লেখা গাড়ি দেখেছিলেন বলে জানান তিনি। সেদিন যোগাযোগ করাহলে র‍্যাব-১১ এর তৎকালীন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তারিক সাইদ মাহমুদসাংবাদিকদের বলেছিলেন, তারা কাউকে আটক করেননি এবং এই ঘটনায় তাদের কোনোসম্পৃক্ততা নেই। এর তিন দিন পর লাশ উদ্ধারের আগে র‍্যাব-১১ এর অধিনায়ককেপ্রত্যাহার করা হয়। এই সেনা কর্মকর্তাকে সেদিনই তার বাহিনীতে ফেরত পাঠানোহয় বলে র‍্যাব জানায়। র‍্যাব-১১ এর অধিনায়ক ছাড়াও নারায়ণগঞ্জের জেলাপ্রশাসক, পুলিশ সুপার ও দুটি থানার ওসিকেও প্রত্যাহার করা হয়। নজরুলপরিবার প্রথমেই ৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি নূর হোসেনের দিকে অভিযোগ তুলেছিলেন। মামলায় প্রধান আসামিওকরেছিলেন তাকে। শহীদুল দাবি করেন, তারা র‍্যাব কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধেঅভিযোগ করলেও পুলিশের বাধায় মামলায় তাদের আসামি করতে পারেননি। নারায়ণগঞ্জেরকাউন্সিলর নজরুল ইসলামসহ সাত খুনের ঘটনায় র‍্যাব ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীসহঅন্যদের জড়িত থাকার অভিযোগ তদন্তে একটি কমিটি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।হাইকোর্টের নির্দেশ জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. শাহজাহান আলীমোল্লাকে চেয়ারম্যান করে বুধবার রাতে সাত সদস্যের কমিটির আদেশ জারি করাহয়। এছাড়া এ কমিটিকে আদেশ জারির সাত দিনের মধ্যে উল্লিখিত তদন্তকাজের অগ্রগতি সম্পর্কে অ্যাটর্নি জেনারেলের মাধ্যমে হাইকোর্ট বিভাগেপ্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. আব্দুলকাইয়ুম সরকার ও আবুল কাশেম মহিউদ্দিন, আইন ও বিচার বিভাগের উপসচিব মো.মোস্তাফিজুর রহমান ও মো. মিজানুর রহমান খানকে কমিটির সদস্য করা হয়েছে।এছাড়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. শফিকুর রহমান ও সাঈদ মাহমুদবেলাল হায়দারকে এই কমিটির সদস্য করা হয়েছে। তদন্ত কাজের জন্য এই কমিটিসহযোগী কর্মচারী নিয়োগ করতে পারবে।

সংবাদ শিরোনাম