ব্রেকিং নিউজঃ
 
Fri, 24 Nov, 2017

 

 

 

 

     
 

দৌলতপুরে রাক্ষুসী যমুনার ভাঙন শুরু

বি-বার্তা/ মানিকগঞ্জ/ ১৩ মে/ মানিকগঞ্জেরদৌলতপুরে রাক্ষুসী যমুনার ভাঙন শুরু হয়েছে। কয়েকদিন ধরে যমুনার অব্যাহতভাঙনের ফলে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে উপজেলার বাঁচামারা, বাঘুটিয়া ও খলসীইউনিয়নের অন্তত ১০ গ্রামের

ফসলি জমিসহ পাঁচ শতাধিক বসতভিটা। বসতভিটা হারিয়েওই এলাকার মানুষগুলো খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন যাপন করছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, দৌলতপুর উপজেলার তিনটি ইউনিয়নের বাঁশতালুক, ঘোষপাড়া, কুটিপাড়া, রৌহা, কাশিদারামপুর, ফকিরপাড়া, বাশাইল, ইসলামপুর, রাহাতপুর, জোতকাশি গ্রামে ভাঙন শুরু হয়েছে। এসব গ্রামের পাঁচ শতাধিকবসতভিটা ইতিমধ্যে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। তিনটি ইউনিয়নের প্রায় আড়াইহাজার একর ফসলি জমিও গিলে খেয়েছে রাক্ষুসী যমুনা। রৌহা গ্রামের আলতাফ মৃধা জানান, সর্বনাশা যমুনা জমিজমা, বাড়িঘর সব গিলেখেয়েছে। পরিবার-পরিজন নিয়ে খুব কষ্টে দিন কাটাচ্ছি। কারো কোনো সাহায্যপাইনি। সরকারের কাছে সাহায্য চাই। একই গ্রামের সোনামুদ্দিন জানান, কয়েকদিন ধরে স্কুলের বারান্দায় আশ্রয় নিয়েছি। বাড়িঘর নদীতে চলে গেছে। খলসীইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন জানান, খলসীসহ পার্শ্ববর্তী আরো দুটিইউনিয়নের প্রায় ১০টি গ্রাম ভাঙনের শিকার হয়েছে। বসতটিভা, ফসলি জমি হারিয়েনিঃস্ব মানুষগুলো মানবেতর জীবনযাপন করছে। অব্যাহত ভাঙনে পার্শ্ববর্তীএলাকার জনগণ আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। সরকারি সহযোগিতার জন্য উপজেলা পরিষদেআবেদন করা হয়েছে। দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আইরিন পারভীন রাইজিংবিডিকে জানান, নদীভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের নামের তালিকা তৈরির কাজ চলছে। খুব শিগগির এসবপরিবারকে ত্রাণসহায়তা দেওয়া হবে। তা ছাড়া, গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলোকে ভাঙনঠেকাতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদ শিরোনাম