ব্রেকিং নিউজঃ
 
Tue, 21 Nov, 2017

 

 

 

 

     
 

সন্ত্রাসীদের গুলিতে ইউপি সদস্য নিহত

বাংলাদেশ বার্তা ২৪.কম/ নরসিংদী/ ৩০ মার্চ/ নরসিংদীরশিবপুরে এলাকার প্রতিপক্ষের গুলিতে এক ইউপি সদস্য নিহত হয়েছেন। সোমবারদুপুর দেড়টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বড়ইতলা নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।নিহত আরিফ হোসেন পাঠান (৪২) শিবপুর উপজেলার পুটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৭নংওয়ার্ডের মেম্বার  ছিলেন।

তিনি উত্তর কারারচর এলাকার আবুল হোসেন পাঠানেরছেলে।পুলিশ,এলাকাবাসী ও নিহতের পারিবার সূত্রে জানা যায়,নরসিংদীরশিবপুরে এলাকার আধিপত্য,জমি সংক্রান্ত বিরোধ ও বিসিক শিল্পনগরীর বিভিন্নকারখানার জুট ব্যবসা নিয়ন্ত্রণকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন যাবৎ নিহত ইউপিসদস্য আরিফের সঙ্গে স্থানীয় প্রতিপক্ষ টিটু পাঠান,আলফাজ ও মোস্তফাদের দন্ধচলে আসছিল। এর জের ধরে গত ৫ মাস পূর্বে ইউপি সদস্য আরিফের সমর্থকরা টিটুপাঠানের উপর হামলা চালায়। এরই জের ধরে বিবদমান দুইটি গ্রুপের মধ্যেউত্তেজনা চলছিল। এর ফলে সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে নিহত ইউপি সদস্য আরিফকেলক্ষ্য করে ৬/৭ জন অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গুলি করে। আরিফ মাথায় গুলিবিদ্ধহয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা ফাঁকা গুলিকরে আতঙ্ক সৃষ্টি করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা আরিফকে উদ্ধার করে জেলাহাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এখবর ছড়িয়েপড়লে বিক্ষুব্ধ জনতা ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করে। এ সময় উত্তেজিত জনতাযাত্রীবাহী বাসসহ ২০ থেকে ২৫টি যানবাহন ভাংচুর করে। খবর পেয়ে পুলিশঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কমপক্ষে ১০ রাউন্ড গুলি করে।পুলিশের গুলিতে আহত হন ১৪ জন। ইটপাটকেলের আঘাতে আরও দুই পুলিশ সদস্য আহতহয়। ঘটনার পর পুলিশ সুপার আমেনা বেগম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব)কামাল হোসেন,নির্বাহী কর্মকর্তা আশরাফুল আশ্রাফ ও উপজেলা চেয়ারম্যান আরিফুলইসলাম মৃধা বিচারের আশ্বাস দিলে বিক্ষুব্ধ জনতা মহাসড়ক থেকে চলে যায়। নিহতের ভাই রোমান পাঠান অভিযোগ করে বলেন, টিটু পাঠান,আলফাজ ও মোস্তফারা এলাকায় সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত। পুলিশসুপার আমেনা বেগম বলেন, গাড়ি ভাংচুর ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফাঁকাগুলি বর্ষণ করা হয়।

সংবাদ শিরোনাম