ব্রেকিং নিউজঃ
 
Thu, 18 Jan, 2018

 

 

 

 

     
 

বখাটের লাঞ্ছনায় স্কুলছাত্রীর আত্মহনন

বাংলাদেশ বার্তা ২৪.কম/ মাদারীপুর/ ১০ মে/ মাদারীপুরেশাওন নামের এক বখাটে যুবকের লাঞ্ছনা সইতে না পেরে ৯ম শ্রেনীর একস্কুলছাত্রী আত্মহনন করেছে বলে অভিযোগ করেছে নিহতের পরিবার। এ ঘটনার পরথেকে শাওন ও তার পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে। এই ঘটনায় জড়িতদের বিচারেরদাবি জানিয়েছে

পরিবারটি। তবে, তদন্ত শেষে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবারকথা জানিয়েছে পুলিশ। নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে চরমুগরিয়া পুলিশফাঁড়ির ইনচার্জ ভীম কুমার দেব নাথ বিশ্বজিৎ বলেন, মাদারীপুর সদর উপজেলাররাস্তি ইউনিয়নের পুটিয়া গ্রামের মোতালেব হাওলাদারের ছেলে শাওন দুবছর ধরেস্কুলে যাওয়া-আসার পথে একই এলাকার চাঁন মিয়ার মেয়ে ও চরমুগরিয়া বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী সাথীকে উত্ত্যক্ত করত। এ নিয়ে শাওনেরপারিবারের কাছেও কয়েক বার নালিশ করা হয়েছে। এলাকাবাসীও চেষ্টা করেছে শাওনকেফেরাতে। এতে শাওন দিন দিন আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে। শনিবার বিকালে স্কুল থেকেফেরার পথে আবারো সাথীর পথরোধ করে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করে বখাটে ওই যুবক।কিন্তু এ জ্বালা আর সহ্য করতে না পেরে অবশেষে বিষপান করে পৃথিবী থেকে বিদায়নেয় সাথী। নিহত সাথীর বাবা চাঁন মিয়া সিপাই বলেন, "তার মেয়েকেগত দুই বছর ধরেই স্কুলে যাওয়া আসার পথে উত্ত্যক্ত করে আসছিল শাওন। শনিবারবিকেলে আমার মেয়ে স্কুল থেকে ফেরার পথে শাওন পথরোধ করে আমার মেয়েকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেছে। পরে সেই অপমান সহ্য করতে না পেরে আত্মহননের পথ বেছেনেয় সাথী। আমরা আমার মেয়ের মৃত্যুর জন্য শাওনের কঠিন শাস্তি দাবি করছি।" মাদারীপুরমডেল থানার ওসি জিয়াউল মোর্শেদ বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করেমাদারীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে এবং এ ঘটনার তদন্ত শেষে সতত্যপেলে দোষীদের আইননের আওতায় আনা হবে। তবে তিনি বলেন এ ঘটনার পর থেকেই শাওন ও তার পরিবারের লোকজন বাড়িতে তালা ঝুলিয়ে পলাতক রয়েছে।

সংবাদ শিরোনাম